ছাতকের গোবিন্দগঞ্জে প্রস্তাবিত দক্ষিণ ছাতক উপজেলায় দুইটি ইউনিয়নকে অন্তর্ভুক্তি প্রত্যাহারের প্রতিবাদে বিশাল প্রতিবাদ সভা

responsive

আতিকুর রহমান মাহমুদ, ছাতক থেকে

ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ ট্রাফিক পয়েন্টে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রস্তাবিত দক্ষিণ ছাতক উপজেলায় গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ও ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়নকে অন্তর্ভুক্তি প্রত্যাহারের দাবীতে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার বেলা ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত প্রতিবাদ সমাবেশ চলাকালে সিলেট-সুনামগঞ্জ ও ছাতক সড়কে প্রায় দুই ঘন্টা সব ধরণের যানচলাচল বন্ধ ছিল।

 

গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাবেক ছাত্রনেতা কাওছার আহমদ এবং উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর আলমের যৌথ পরিচালনায় আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মখলিছুর রহমান, ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ফিরোজ আলী, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সুন্দর আলী ও নিজাম উদ্দিন, উপজেলা বিএনপির আহবায়ক ফারুক আহমদ, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক, সহ-সভাপতি ফারুক আহমদ সরকুম, জাপা নেতা আবুল লেইছ মো. কাহার, আওয়ামীলীগ নেতা খালেদ হাসান, গৌছ উদ্দিন, মাস্টার নাছির উদ্দিন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আলহাজ্ব ওবায়দুর রউফ বাবলু, সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক এমএ গফ্ফার, উপজেলা যুবলীগ নেতা আবু হানিফা সায়মন, জুসেফ আহমদ, হারুন মিয়া, আব্দুল হান্নান আঙ্গুর, যুবদল নেতা সদরুল আমীন সোহান, আতাউর রহমান এমরান, আলী আশরাফ তাহিদ,  আশরাফুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা জালাল উদ্দিন,  মাওলানা মখলিছুর রহমান, কাজী মাওলানা আব্দুস সামাদ, হুসাইুজ্জামান লিটন, ইউপি সদস্য হুসাইন আহমদ লনি, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক তাজাম্মুল হক রিপন, ডালিম, কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি আতাউর রহমান সোহাগ প্রমুখ।

 

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ও ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়নবাসী ছাতক উপজেলার সাথে ছিলো আছে এবং থাকবে। এতে যে কোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে দুই ইউনিয়ের জনগণ প্রস্তুত। প্রয়োজনে রাজপথে রক্ত দিতে হলেও তারা প্রস্তুত আছেন। তার পরও প্রস্তাবিত দক্ষিন ছাতক উপজেলায় অন্তর্ভুক্তি করা যাবে না গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ও ছৈলা-অাফজলাবাদ ইউনিয়নকে। ষড়যন্ত্রকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তারা হুশিয়ারি করে বলেন ভূলে গেলে চলবেনা, এটি সুনামগঞ্জের প্রবেশদ্বার গোবিন্দগঞ্জ। দক্ষিণ ছাতক অন্যান্য ইউনিয়ন নিয়ে করেন, বাঁধা নেই। দলমত নির্বিশেষে আগামীতে ঐক্যবদ্ধভাবে শান্তিপূর্ণ ভাবে সকল আন্দোলন সফল করতে দুই ইউনিয়নের সর্বস্থরের গনগণকে আহবান জানান বক্তারা।

 

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, বুধবার বেলা ২টায় গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ও ছৈলা-অাফজলাবাদ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে মিছিল সহকারে প্রতিবাদ সমাবেশে জড়ো হতে থাকে জনতা। এক ঘন্টায় গোবিন্দগঞ্জ ট্রাফিক পয়েন্টস্থ সমাবেশ স্থল কানায়কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এক পর্যায়ে সিলেট-সুনামগঞ্জ ও ছাতক সড়কে সকল ধরণের যানচলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। বিক্ষুব্ধ জনতা সড়ক অবরোধ করে রাখে। এতে তিন পাশে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে। ##

responsive

মন্তব্যসমূহ (০)


ব্রেকিং নিউজ

লগইন করুন


Remember me Lost your password?

Don't have account. Register

Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন